আমার ১৭ বছরের ক্যারিয়ারে বড় সম্মান এটাই: বাঁধন

আজমেরি হক বাঁধন। রেহানা মরিয়ম নূর সিনেমায় অভিনয় করে বিশ্বের নানা দেশের চলচ্চিত্র উৎসবে গিয়েছেন নিজের সিনেমা নিয়ে। পুরস্কার ও প্রশংসা দুটোই পেয়েছেন। এই সিনেমার জন্য প্রথমবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন সেরা অভিনেত্রী হিসেবে।

সুখবর দিলেন চিত্রনায়িকা নিপুণ


পুরস্কার প্রাপ্তির খবর পাবার পর সম্প্রতি একটি জাতীয় দৈনিকের কথা বলেছেন অভিনেত্রী বাঁধন।

অনুভূতি জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি আনন্দিত এবং মুগ্ধ। এটা অবশ্যই বড় সম্মান। রেহানা মরিয়ম নূর সিনেমার জন্য এই পুরস্কার পেয়েছি। পুরো টিমের কাছে কৃতজ্ঞ। বিশেষ করে পরিচালক সাদ অনেক যত্ন করে সিনেমাটি বানিয়েছেন। পুরো টিম পরিশ্রম করেছেন।

আমার ১৭ বছরের ক্যারিয়ারে বড় সম্মান এটাই: বাঁধন

বাঁধন বলেন, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার আমার জন্য স্পেশাল। একই সঙ্গে আমি আনন্দিত, লজ্জিত ও দুঃখিত। কেননা, রেহানা মরিয়ম নূর দেশকে সম্মানিত করেছে কান চলচ্চিত্র উৎসবসহ নানান দেশে। এই সিনেমা দিয়ে দেশকে চিনেছে সুন্দরভাবে। এশিয়া প্যাসিফিকে পুরস্কার এসেছে। স্পেনে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছি। হংকংয়ে পেয়েছি। আরও নানা জায়গায় সম্মানিত হয়েছে। আমি আশা করেছিলাম রেহানা মরিয়ম নূর আরও সম্মানিত হবে।

বিয়ের ৮ বছর পর বাবা হলেন এই নির্মাতা


বাঁধন বলেন, বাসার সবাই খুশি। আব্বা ও মা খুশি। মেয়েও অনেক খুশি। আমার পরিবারের প্রতিটি মানুষই খুশি। আমার ১৭ বছরের ক্যারিয়ারে বড় সম্মান জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, এটার জন্য সবাই আনন্দিত।

তিনি বলেন, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্তি অবশ্যই বড় অর্জন। মানুষের ভালোবাসাটাও বড় অর্জন। এছাড়া রেহানা মরিয়ম নূর সিনেমা দিয়ে কান ফ্যাস্টিভ্যালে গেছি, ওখানে প্রশংসা পেয়েছি, বাংলাদেশকে প্রেজেন্ট করেছি, অনেক দেশে গেছি এই সিনেমা দিয়ে, এটাও অনেক বড় অর্জন আমার জন্য। জীবনে অনেক সংগ্রাম করেছি, কখনো ভালো থেকে সরে আসিনি। সবসময় ভালো কাজের সঙ্গে থেকেছি।

প্রথমবার জুটি হলেন ইমরান ও কোনাল

এই অভিনেত্রী বলেন, সত্যি কথা বলতে আমি আমার কাজের প্রতি সবসময় সৎ ছিলাম এবং আছি। আমার কাজের প্রতি ভালোবাসা যেমন আছে, দায়বদ্ধতাও আছে। এটা আগে থেকেই। পুরস্কার পাবার পর সেটি আরও সুন্দরভাবে করতে হবে। আমি মনে করি শিল্পের প্রতি সবারই দায় আছে, সেজন্যই আমরা শিল্পকে ভালোবাসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *