রানী মুখার্জি জানালেন তাঁর জীবনে ঘটে যাওয়া এক অজানা কাহিনী

খুব শীঘ্রই ‘মিসেস চ্যাটার্জি ভার্সেস নরওয়ে’ নিয়ে পর্দায় ফিরছেন রানী। প্রায় দুই বছর পর আবারও পর্দায় যশ রাজ কর্ণধারের ঘরণি। ‘বান্টি অউর বাবলি ২’-এর ব্যর্থতা পেছনে ফেলে সামনে তাকাতে চান রানী। ‘মিসেস চ্যাটার্জি ভার্সেস নরওয়ে’তে ফুটে উঠবে একটা গোটা দেশের বিরুদ্ধে এক মায়ের লড়াই।

সন্তানদের যথাযথ দেখাশোনা করেন না দেবিকা (রানী), এই অজুহাতে তার দুই সন্তানকে কেড়ে নেবে নরওয়ে প্রশাসন। দেবিকাকে ‘অযোগ্য মা’-এর তকমা দেওয়া হবে। কারণ সে ছেলেমেয়েকে হাতে করে খাবার খাওয়ায়, এক বিছানায় নিয়ে ঘুমায়।

সিনেমাটির প্রচারে এক সাক্ষাৎকারে মাতৃত্বের প্রসঙ্গে কথা উঠতেই রানী জানিয়েছেন নিজের জীবনের অজানা কথা। অল্প বয়সে মায়ের বদৌলতেই অভিনয়ের জগতে আসেন তিনি, এমনটাই জানালেন অভিনেত্রী।

রানী পরে বুঝতে পারেন তাঁর পরিবারের আর্থিক পরিস্থিতি ভালো নয় এবং কাজ করে তিনি সেই পরিস্থিতিকে খানিকটা হলেও পাল্টাতে পারবেন।

সাক্ষাৎকারে রানী বলেন, ‘যখন আমি বড় হচ্ছি, আমার কাছে একটা অফার আসে। আমার মা খুব শান্তভাবে বলেছিল, চেষ্টা কর যদি না চলে তাহলে আবার পড়াশোনায় মন দেবে। আমি সেই সময় বুঝতে পারিনি আমার পরিবারের আর্থিক পরিস্থিতি খারাপ ছিল, আর্থিক সহায়তার দরকার ছিল। কিন্তু সেই সময় আমার মাথায় আসেনি ব্যাপারটা। কারণ কোনো বাচ্চাই ভাবতে পারে না যে তার বাবা-মা ভালো নেই।’

অভিনেত্রী বলেন, ‘আমাকে আর আমার ভাইকে খুব স্বাচ্ছন্দ্যে বড় করেছেন বাবা-মা। আমি সত্যি গর্বিত, সেদিন মা আমাকে রাজি করিয়েছিল অভিনয়ের জগতে আসতে। কারণ আজ আমি নিজের পেশাকে ভালোবাসি।’ যদিও ছেলেবেলা থেকে বড় হয়ে আইনজীবী বা অন্দরসজ্জা শিল্পী হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন রানী।

রানীর বাবা রাম মুখোপাধ্যায় বেশ কিছু হিন্দি ও বাংলা ছবি পরিচালনা করেছেন। ‘হাম হিন্দুস্তানি’, ‘লিডার’-এর মতো বলিউড সিনেমার পরিচালক তিনি। রানীর অভিষেক চলচ্চিত্র ‘বিয়ের ফুল’ তৈরি হয়েছিল তার বাবা রাম মুখোপাধ্যায়ের পরিচালনায়।

ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে প্রায় ২৫ বছর কাটিয়ে ফেলেছেন রানী মুখোপাধ্যায়। গোটা দেশে তাঁর পরিচিতি গড়ে ওঠে ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’-এর সুবাদে। টিনার চরিত্রে অভিনয় করে সাড়া ফেলে দিয়েছিলেন এই বঙ্গ তনয়া। তবে ১৯৯৬ সালে ‘বিয়ের ফুল’ সিনেমার মাধ্যমে রুপালি জগতের সফর শুরু রানীর। তাঁর প্রথম হিন্দি সিনেমা ছিল ‘রাজা কি আয়েগি বারাত’।

রানীকে সামনে দেখা যাবে ‘মিসেস চ্যাটার্জি ভার্সেস নরওয়ে’তে। সিনেমাটিতে রানীর স্বামীর চরিত্রে দেখা যাবে টলিউড অভিনেতা অনির্বাণ ভট্টাচার্যকে। এ ছাড়াও এই সিনেমায় আরো অভিনয় করেছেন জিম সর্ব, নীনা গুপ্তার মতো তারকা। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা

192 thoughts on “রানী মুখার্জি জানালেন তাঁর জীবনে ঘটে যাওয়া এক অজানা কাহিনী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *