নায়িকা না হয়েও অটোগ্রাফ দিতে হয় কাজলের মেয়েকে

0

বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় তারকা দম্পতি অজয় দেবগন ও কাজল। তাদের দুই সন্তান— নায়সা ও যুগ। সিঙ্গাপুরের ইউনাইটেড ওয়ার্ল্ড কলেজ অব সাউথ ইস্ট এশিয়াতে লেখাপড়া করছেন নায়সা। শোবিজ অঙ্গনে এখনো পা রাখেননি তিনি। কিন্তু নিয়মিত আলোচনায় থাকেন এই তারকা সন্তান।

মূলত, বন্ধুদের সঙ্গে পার্টিতে যোগ দিয়েই অধিকাংশবার আলোচনার জন্ম দিয়েছেন নায়সা। গত কয়েক মাসে নায়সার বেশ কিছু ছবি ও ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। আর এসব ছবিতে নায়সার রূপের দ্যুাতি বিশেষভাবে নেটিজেনদের নজর কেড়েছে। তাদের দাবি— ‘এ যেন অন্য এক নায়সা।’ এখানেই শেষ নয়, সিঙ্গাপুরে লোকজন নায়সাকে থামিয়ে তার অটোগ্রাফ নিয়েছেন।

ম্যাশএবল ডটকমের সঙ্গে আলাপকালে কাজল বলেন— ‘আমাদের সময় সোশ্যাল মিডিয়া ছিল না, তাই বাচ্চা হিসেবে আমাদের জীবনটাও অনেক সহজ ছিল। হ্যাঁ, কিছু মানুষ জানতেন আমি তনুজার কন্যা। কিছু ধারণা তাদের মধ্যেও ছিল, তবে সেটা এখনকার মতো না। লেখাপড়ার জন্য নায়সা সিঙ্গাপুরে থাকে। সেখানে বাসে যাওয়ার সময়ে অনেক মানুষ ওর অটোগ্রাফ নিয়েছে।’

কাজল মনে করেন তার মেয়েকে এখন গোটা পৃথিবীর মানুষ চেনেন। তা উল্লেখ করে এই অভিনেত্রী বলেন, ‘এটা হয়তো একটু অদ্ভুত। কিন্তু ওকে গোটা বিশ্বের মানুষ চেনে। আমাকে অন্তত ততক্ষণ চিনত না, যতক্ষণ না আমি ফিল্মি ক্যারিয়ার শুরু করেছি। যেখানে ইচ্ছা সেখানে যাওয়ার স্বাধীনতা আমার ছিল। যেমন— সিনেমায় আসার আগ পর্যন্ত লন্ডনে আমাকে সেভাবে মানুষ চিনত না।’

বাবা-মায়ের মতো নায়সাও অভিনয়ে আসবেন কিনা? এমন প্রশ্নের উত্তরে কাজল বলেন—‘নায়সার মাত্রা ১৮ বছর বয়স হলো। এখন ও জীবনটা উপভোগ করুক। আমরা ওকে কোনো বিষয়ে জোর করতে চাই না। ওর যা ইচ্ছে সেটাই করবে। অভিনয় আসবেন কিনা সেটা সময় বলবে।’

১৯৯৪ সালে প্রেমের সম্পর্কে জড়ান অজয়-কাজল। ১৯৯৯ সালে বিয়ে করেন এই জুটি। ২০০৩ সালের এপ্রিলে জন্ম হয় নায়সার।

Leave A Reply

Your email address will not be published.