দরজা ভেঙে দোকানে ঢুকে পড়লো গরু

0

মাত্র দোকানের কর্মচারী সীমা চা হাতে ধরিয়ে দিয়েছেন পরিচালক রত্না খাতুনের। তিনি চায়ের কাপ ঠোঁটে লাগাবেন, এমন সময় হঠাৎ যেন তার চোখ ছানাবড়া হয়ে গেলো। একটি লাল ধূসর রঙের গরু কাচের দরজা ভেঙে ঢুকে পড়লো তার দোকানে।

বুধবার (৬ জুলাই) সন্ধ্যার দিকে এ ঘটনাটি ঘটেছে বগুড়া সদর উপজেলার ধরমপুরের ‘জাফরিন কালেকশন’ নামের একটি দোকানে। এ সময় দোকানে থাকা দুইজন নারী সামান্য আঘাত পেয়েছেন।

জানা গেছে, বগুড়া সদর উপজেলার ধরমপুর এলাকার মনছুর আলী বুধবার সন্ধ্যায় মহাস্থান হাট থেকে কোরবানির জন্য একটি গরু কেনেন। ভটভটিতে করে গরুটিকে বাড়িতে আনেন তিনি। গাড়ি থেকে গরুটি নামানোর সময় হঠাৎ সেটির দড়ি ফসকে যায়। এ সময় গরুটি ভয় পেয়ে এদিক সেদিক ছোটাছুটি শুরু করে। এক পর্যায়ে গরুটি ‘জাফরিন কালেকশন’ নামের দোকানের কাচের দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে পড়ে। এ সময় দোকানে থাকা দুই নারী চিৎকার শুরু করলে গরুটি ভয় পেয়ে শো-কেসের ওপর উঠে পড়ে। ফলে শো-কেসটিও ভেঙে যায়।

জাফরিন কালেকশনের স্বত্ত্বাধিকারী রিন্টু মিয়া জানান, তিনি ও তার স্ত্রী রত্না খাতুন দু’জনে মিলেই দোকানটি পরিচালনা করেন। ঘটনার সময় তার স্ত্রী এবং সীমা নামের এক কর্মচারী দোকানে ছিলেন। তিনি দোকানের পাশেই ছিলেন। হঠাৎ করে দোকানের ভেতর থেকে চিৎকার শুনতে পেয়ে কাছে গিয়ে দেখতে পান গরু দোকানে ভেতর ঢুকে সবকিছু ভেঙে ফেলছে।

এরপর দোকানে থাকা স্ত্রী ও কর্মচারীকে তিনি চিৎকার থামাতে বললে কিছুক্ষণ পর গরুটি শান্ত হয়। পরে আশপাশ থেকে কয়েকজন লোক এসে গরুটিকে দোকান থেকে বের করেন। পরে গরুটিকে তার মালিক মনছুর আলীকে দিয়ে দেওয়া হয়।

তিনি বলেন, এটি একটি দুর্ঘটনা। তবে এ ঘটনায় তার ৪৫ হাজার টাকার মতো ক্ষতি হয়েছে।

রত্না খাতুন বলেন, ‘মাত্র সীমা আমাকে চা দিয়েছে। আমি চা খাবো। এমন সময় গরুটি গ্লাসের দরজা ভেঙে ভেতরে ঢোকে। গরুটি লাফালাফি করতে শুরু করে। আমরা চিৎকার করতে থাকি। আমি ও দোকানের কর্মচারী সীমা সামান্য আঘাত পেয়েছি।’

Leave A Reply

Your email address will not be published.